গত কয়েকদিন আগে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হন। তবে প্রথম দিকে তিনি একটি বাসায় থেকে চিকিৎসা নিতে থাকেন। এরপর তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। এদিকে এই সম্মানিত ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার পর তাকে নিয়ে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের সবাই অনেক চিন্তিত ছিলেন। তবে বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থা আগের থেকে ভালোর দিকে বলেছেন চিকিৎসকরা। আর আজ তার বিষয়ে গণমাধ্যমের সাথে কথা বলেছেন চিকিৎস।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display



ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর শারীরিক অবস্থা উন্নতির দিকে। আজ বুধবার এ তথ্য জানিয়েছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের চিকিৎসক ডা. মুহিব উল্লাহ খোন্দকার। তিনি বলেন, ’নিয়ম-কানুন না মানা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে নিয়ে আমরা গণস্বাস্থ্যের সবাই খুবই উদ্বিগ্ন ছিলাম। তবে সময়ের ব্যবধানে জাফরুল্লাহ চৌধুরী এখন সুস্থতার দিকে।’

ডা. মুহিব উল্লাহ বলেন, ’ডা. জাফরুল্লাহকে বাসায় আইসোলেশনে না রেখে হাসপাতালে সার্বক্ষণিক চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে রাখা হয়েছে। কারণ, এমনিতেই তার শারীরিক অবস্থা ক্রিটিক্যাল।’

তিনি বলেন, ’আমরা যারা সার্বক্ষণিক তার সাহচর্যে ছিলাম, সবাই নিজ নিজ বাসায় আইসোলেশনে আছি। তার স্ত্রী ও ছেলে বাসায় আইসোলেশনে রয়েছেন। তারাও সুস্থতার দিকে।’




উল্লেখ্য, এই সম্মানিত ব্যক্তির করোনা ভাইরাসের উপসর্গ দেখা দিলে তিনি গত ২৫ মে তাদের প্রতিষ্ঠানের উৎপাদিত করোনা শনাক্তের কিট দ্বারা করোনার নমুনা পরীক্ষা করেন। এরপর তার করোনার রিপোর্ট পজেটিভ আসে। তবে এরপর তার করোনার নমুনা পরীক্ষা করে বিএসএমএমইউ আর সেই রিপোর্টেও পজেটিভ আসে। বর্তমানে তিনি ধানমন্ডির গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এদিকে, এই সম্মানিত ব্যক্তির স্ত্রী ও ছেলেও করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন তারা বর্তমানে বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছেন।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display