করোনা ভাইরাসের কারণে দেশে লাখ লাখ মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে। এর কারণে কর্মহীন হয়ে অনেক মানুষ দুঃসহ সময় কাটাচ্ছেন। এদিকে, ক্রিকেট তারকারা এই সকল কর্মহীন মানুষদের পাশে দেথে সাধ্যমতো সহায়তা করে যাচ্ছেন। তেমনি সাকিব আল হাসানও করোনা মোকাবিলায় সহায়তা করেছেন। তবে গতকাল একটি সংবাদ প্রকাশ হওয়ার পর থেকে ব্যাপক আলোচনা দেখা দেয়।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display


বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসানের মালিকানাধীন সাতক্ষীরার ’সাকিব আল হাসান অ্যাগ্রো ফার্ম’ এর শ্রমিকরা ৪ মাস বেতন পাননি! বকেয়া বেতনের দাবিতে গতকাল তারা বিক্ষো’ভও করেছেন। কেউ বিশ্বাস করতে পারছিল না, যে সাকিব ব্যক্তি উদ্যোগে করোনা দূর্গতদের ত্রাণ দিয়ে যাচ্ছেন তার শ্রমিকরা বেতন পাচ্ছেন না!

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত জানুয়ারি থেকে বিভিন্ন কারণে সাকিব তার ফার্মের সরাসরি তদারকি করতে পারছিলেন না। এসময় পাভেল নামের একজন সাকিবের অ্যাগ্রো ফার্মটির ম্যানজার হিসেবে কাজ করেন। তার ওপর আস্থা রাখতেন সাকিব। কিন্তু এই পাভেলের অবহেলার কারণে শ্রমিকদের বেতন আটকা পড়ে যায়। শ্রমিকরা ৪ মাসের বেতনের দাবি করলেও সাকিবের ব্যক্তিগত ম্যানেজার সোহান ২ মাসের বেতন বকেয়া থাকার কথা জানান।

করোনাভাইরাসের এই সময় সাকিব আল হাসান তার পরিবারসহ যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন। সোমবার বিভিন্ন গণমাধ্যমে এই বিষয়ক প্রতিবেদন প্রকাশ হলে সমালোচনার ঝ’ড় ওঠে। সবকিছু জানার পর সাকিব ভীষণ বিব্রত হয়ে পড়েছেন বলে জানা গেছে। সেইসঙ্গে তিনি ৩০ এপ্রিলের মধ্যে শ্রমিকদের সমস্ত বেতন পরিশোধ করার নির্দেশও দিয়েছেন। উল্লেখ্য, এই লকডাউনের মাঝেও সাকিব আল হাসান অ্যাগ্রো ফার্ম লিমিটেডের সকল কার্যক্রম চালু রয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালে সাতক্ষীরায় সাকিব আল হাসান কাঁকড়া খামার শুরু করেন। আর এই খাবারের শ্রমিকরা গত চার মাসের বেতন পান না বলে সংবাদ প্রকাশ হয়। এরপর এই খাবারের শ্রমিকরা রাস্তায় নেমে যায়। তবে এবার এই শ্রমিকদের খুব তারাতারি বেতন দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display