আমরা চাই সারা পৃথিবীর গনতন্ত্রকামী বাংলাদেশী এই প্রকল্পে যুক্ত হোক : পিনাকী

জোর করে আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় থেকে দেশের মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছে। শুধু তাই নয় ক্ষমতায় থাকার জন্য বিরোধী মতকে দমন করতে বিভিন্ন অপকর্মাণ্ড ঘটিয়েছে। গণতন্ত্রকে ধ্বং/স করে একনায়তন্ত্র রাজত্ব কায়েম করেছে। যারা গণতন্ত্রের পক্ষ লড়াই করেছে তাদের ওপর নানা ভাবে নি/র্যাতন নীপিড়ন চালাচ্ছে সরকার। বিষয়টি নিয়ে সা/মাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ/কটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন পিনাকী ভট্টাচার্য পা/ঠকদের জন্য হুবহু নি/চে তুলে ধরা হলো।

প্যারিসে স্ট্রিট আর্ট মানে রাস্তার দেয়ালে আকা একটা পৃথিবীখ্যাত ঐতিহ্যবাহী শিল্প।

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা FIDH এবং প্যারিসে নির্বাসিত মানবাধিকার কর্মিরা প্যারিসে বাংলাদেশে চলমান মানবাধিকার লংঘনকারী গুমের ঘটনা ব্যাপকভাবে আন্তর্জাতিক মহলের নজরে আনার জন্য প্যারিসের স্ট্রিট আর্ট সংগঠনকে দিয়ে কয়েকটি স্ট্রিট আর্ট আকানো হবে।

প্যারিসের তরুণ শিল্পিরা আকবে এই ছবিটা। যা নিচে দেখতে পারছেন। লেখা থাকবে বাংলা ইংরেজি ও ফরাসিতে “বাংলাদেশের কর্তৃত্ববাদী হাসিনার শাসনের শিকার অসংখ্য গুমের বিরুদ্ধে পৃথিবীবাসী সোচ্চার হোন”।

আমরা চাই সারা পৃথিবীর গনতন্ত্রকামী বাংলাদেশী এই প্রকল্পে যুক্ত হোক। আমরা শেষ পর্যন্ত কয়টা স্ট্রিট আর্ট করাবো সেটা নির্ভর করবে আমরা কতো ফান্ড জোগাড় করতে পারছি। কোথায় কোথায় করবো সেটা আমরা সঙ্গত কারণেই প্রকাশ করছি না। আমরা প্যারিস প্রশাসনের কাছে অনুমতি প্রার্থনা করেছি। আমরা অন্তত একটা স্ট্রিট আর্ট আগামী আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে উন্মুক্ত করতে চাই যদি পর্যাপ্ত অর্থ সংগ্রহ করতে পারি। এই প্রকল্পে সংগৃহীত অর্থের পরিমান ও খরচের হিসাব এফ আইডি এইচের সাইটে প্রকাশ করা হবে। উদ্বৃত্ত কিছু অর্থ থাকলে তা মায়ের ডাকের সাংগঠনিক কর্মসুচী চালানোর জন্য দান করা হবে।
নিচের লিংকে গেলে আপনারা দান করতে পারবেন। সবাইকে আগাম ধন্যবাদ।

প্রসঙ্গত, যারা গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করছে তাদের জন্য সহযোগিতার জন্য সর্বাত্বক চেষ্টা করা হবে মন্তব্য করেন পিনাকী ভট্টাচার্য। তিনি বলেন, গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করে যারা সর্বস্ব হারিয়েছেন তাদের জন্য এই প্রচেষ্টা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *