দেশের মানুষের দিকে বন্দুক তাক করবেন না : রুমিন ফারহানা

নির্বাচন সামনে রেখে নিরপেক্ষ সরকারসহ বিভিন্ন ইস্যুতে সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন সংগ্রাম করছে বিএনপি। তাদের দাবি সরকার অবৈধ্য ভাবে ক্ষমতা দখল করে দেশের মানুষের ভোট ব্যবস্থা ধ্বং/স করেছে। যার জন্য দেশের মানুষ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারছে না। আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারের পতন ঘটিয়ে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করা হবে এমন বার্তা দিয়েছেন বিএনপি শীর্ষ নেতারা। আগামী নির্বাচনে ইভিএমে ভোট করতে দেওয়া হবে না মন্তব্য যা বললেন সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা।

বিএনপির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ও সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা বলেছেন, “শেখ হাসিনা সরকার ২০১৪ ও ২০১৮ সালের নির্বাচনের নামে তামাশা করেছে। কিন্তু নির্বাচনের নামে এ ধরনের তেলেসমাতি আর হতে দেওয়া হবে না। বাংলাদেশে ইভিএমে ভোট দেওয়া হবে না। শেখ হাসিনার পদত্যাগ করে নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে।

আজ শনিবার বিকেলে কুমিল্লা টাউন হল মাঠে বিএনপির সাংগঠনিক বিভাগীয় গণসমাবেশে দেওয়া বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রুমিন ফারহানা বলেন, “সরকার উন্নয়ন করছে। কিন্তু দেশে কোনো রিজার্ভ নেই। সব লুটপাট করা হয়েছে। সব হিসাব নেওয়া হবে। পুলিশের সমালোচনা করে তিনি বলেন,নিজের দেশের মানুষের দিকে বন্দুক তাক করবেন না।

কুমিল্লা জেলা বি/এনপি আহ্বাবায়ক হাজী আমিন উর রশিদ ইয়াছিনের সভাপতিত্বে গণসমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

প্রসঙ্গত, সরকার বিগত নির্বাচনের মতো আবার বিনা ভোটে ক্ষমতায় যেতে চায় কিন্তু এবার সে সুযোগ তাদের দেওয়া হবে না মন্তব্য করেন সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা। তিনি আরও বলেন, আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারকে হটানো হবে দেশের জনগণকে সঙ্গে নিয়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *