বলিউডের পারিশ্রমিক বিতর্ক, অবশেষে মুখ খুললেন বিদ্যা বালান

বলিউডের আলোচিত অ/ভিনেত্রী বিদ্যা বালান। একের পর এক জনপ্রিয় সিনেমায় অভিনয়ের মাধ্যমে ক্যারিয়ারে শীর্ষ সময় পার করছেন আলোচিত এই অভিনেত্রী। অভিনয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন ঘটনার ঘটিয়ে প্রায় আলোচনায় আসেন তিনি। এবার অভিনেত্রীদের পারিশ্রমিক বৈষম্য নিয়ে মন্তব্য করে যা জানালেন আলোচিত অ/ভিনেত্রী বিদ্যা বালান।

বলিউডে পুরুষ ও মহিলা অভিনেতাদের পারিশ্রমিক বৈষম্য নিয়ে অভিযোগ বেশ পুরনো। অভিযোগ, একই কাজের জন্য অভিনেতাদের যে পারিশ্রমিক দেওয়া হয় তার থেকে অভিনেত্রীদের কম পারিশ্রমিক দেওয়া হয়। এবার এ বিষয়ে মুখ খুললেন অভিনেত্রী বিদ্যা বালান। এ বিষয়ে আলোচনায় অংশ নেন তিনি। তাঁর সঙ্গে ছিলেন হুমা কুরেশি, নিমরত কৌর, মৃণাল ঠাকুর।

সেই আলোচনায় অভিনেত্রী জানান, পারিশ্রমিক হিসেবে যা পাচ্ছেন তাতেই তিনি খুশি। হিন্দুস্তান টাইমসের খবর

খবরে বলা হয়েছে, আলোচনার বিষয়বস্তু ছিল একই কাজের জন্য বলিউডে অভিনেতাদের তুলনায় অভিনেত্রীরা কম পারিশ্রমিক পান। সেখানে এই বৈষম্য নিয়ে কথা বলতে গিয়ে ‘কাহানি’ খ্যাত এই অভিনেত্রী বলেন, পারিশ্রমিকের ব্যাপারে ঠিক বলতে পারছি না, কারণ আমি কোনো বড় অভিনেতার সঙ্গে কাজ করছি না। আমার মনে হয় পুরো ব্যাপারটা এখান থেকেই শুরু হয়েছে।

বিদ্যা আরও বলেন, যে ছবিতে আমি অভিনয় করছি তার বাজেট অনুযায়ী আমি কতটা পাচ্ছি এবং অন্য কোনও বড় বাজেটের ছবিতে একজন অভিনেতা কতটা পাচ্ছেন তার তুলনা করলে দেখবেন দুটোর শতাংশই বেশি বা কম একই। এখন তারা আমার থেকে অনেক বড় বাজেটের ছবি করে, তাই তারা বেশি পারিশ্রমিক পায়। আমি তাদের থেকে ১০ গুণ কম বাজেটে চলচ্চিত্রে কাজ করি, তাই আমি ১০ গুণ কম পারিশ্রমিক পাই। তবে আমি আমার কাজের জন্য যা পাই তাতেই খুশি।’

এই প্রথম নয় যে বিদ্যা বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন। তিনি এর আগেও এই বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন। এরপর তিনি স্বীকার করেন অভিনেতা-অভিনেত্রীদের পারিশ্রমিকের মধ্যে ব্যবধান রয়েছে। তবে সময়ের সাথে সাথে এই দূরত্ব মিটে যাবে বলে তিনি বিশ্বাস করেন।

বিদ্যা বালানকে শেষ দেখা গিয়েছিল সুরেশ ত্রিবেণীর ‘জলসা’ ছবিতে। সেখানে তিনি সাংবাদিকের ভূমিকায় অভিনয় করেন। এ ছবিতে তার সঙ্গে ছিলেন শেফালী শাহ, মানব কাল প্রমুখ। তাকে পরবর্তীতে প্রতীক গান্ধীর সঙ্গে একটি ছবিতে দেখা যাবে।

প্রসঙ্গত, অভিনেতাদের তুলনায় অভিনেত্রীদের পারিশ্রমিক কম দেওয়া হয় মন্তব করেন অভিনেত্রী বিদ্যা বালান। তিনি আরও বলেন, বিষয় নিয়ে আলোচনা নতুন কোনো বিষয় নয় তবে অচিরে এই বৈষম্য দূর হবে বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *