বাধ্য হয়ে সরকার কোথাও অনুমতি দেবে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আগামী নির্বাচনকে সা/মনে রেখে রাজনৈতিক দলগুলো সরকারে বিরুদ্ধে বিভিন্ন দাবিতে আন্দোলন কর্মসূচি পালন করছে। আওয়ামীলীগ গনতন্ত্রকে ধ্বং/স করে দেশে একনায়তন্ত্র রাজত্ব কায়েম করেছে। কিন্তু আওয়ামীলীগ সরকারের মন্ত্রী-এমপিরা গণতন্ত্রের ছবক দিচ্ছে। দ্রব্য মূল্য বৃদ্ধিসহ নানা ইস্যুতে বিরোধী দল বিএনপি মাঠে আন্দোলন কর্মসূচি পালন করছে তারা। যার ধারাবাহিকতায় আগামী ১০ নভেম্বর ঢাকা সমাবেশ করবে বিএনপি। এই সমাবেশের অনুমতি দেওয়া না যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

রাজধানীর নয়াপল্টনে ১০ ডিসেম্বর বিএনপির সমাবেশ প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, সরকার বাধ্য হয়ে কোথাও তা হতে দেবে না। যেখানে সরকার এটিকে ভাল এবং নিরাপদ মনে করে সেখানেই তাদের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ছাড়া বড় সমাবেশ সম্ভব নয়। তিনি বলেন, এ সরকার বাধ্যবাধকতার সরকার নয়।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) রাজধানীতে ঢাকা ক্লাব আয়োজিত ‘দ্বিতীয় শেখ কামাল সার্ক স্নোকার চ্যাম্পিয়নশিপ-২০২২’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিএনপি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ভেন্যু চেয়েছে। ডিএমপি কমিশনার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানকে উপযুক্ত মনে করেন তাই সেখানে বিএনপিকে অনুমতি দেওয়া হয়েছে। আমাদের আওয়ামী লীগের কিছু দলীয় কর্মসূচি আছে, সেগুলো শেষ হয়ে যাবে। এরপর সেখানে সমাবেশ করতে পারবে বিএনপি। তারা (বিএনপি) কী বলছে আমরা জানি না।

বিএনপি বলছে, পল্টনে সমাবেশের অনুমতি দিতে সরকার বাধ্য হবে। এমন প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সরকারের কোনো বাধ্যবাধকতা নেই। সরকার যেখানে ভালো সেখানে অনুমতি দেয়। পল্টনে সমাবেশ করার জন্য তাদের আনুষ্ঠানিক কোনো অনুমতি এখনো আসেনি। বিএনপি আমাদের কাছে আসছিল। তারা তিনটি জায়গার কথা বলেছেন। তার মধ্যে একটি ছিল সরওয়ার্দী উদ্যান।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ছাড়া অন্য কোথাও সমাবেশ করতে পারবে বিএনপি? এই সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, আপনাদের কাছে আমার একটি প্রশ্ন আছে। এত বড় সমাবেশ তারা করবে কোথায়? সংসদ ভবনের সামনে বিএনপি চেয়েছিল, সেখানে কাউকে সমাবেশের করতে দেওয়া হয় না।

প্রসঙ্গত, বিএনপির কোথায় সমাবেশে করলে ভালো হয় সেটি বুঝেই অনুমতি দেওয়া হবে তাদের ইচ্ছা মতো দিতে বাধ্য নয় সরকার মন্তব্য করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি আরও বলেন, জনগণের চলাচলের বিঘ্ন ঘটে এমন স্থানে অনুমতি দেওয়া সম্ভব নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *