‘বেশরম’ গেরুয়া বিকিনির জের, এবার সেন্সর বোর্ডে ধাক্কা খেল শাহরুখের পাঠান

দীর্ঘ বিরতির পর পাঠান সিনেমার মাধ্যমে আবারও নতুন করে হাজির হয়েছেন বলিউড বাদশা শাহরুখ খান। পাঠান গান ‘বেশরম রং’ প্রকাশ হওয়ার পর থেকে ব্যাপক সাড়া পড়ে দর্শক ও ভক্তদের মধ্যে। তবে গানটি নিয়ে যেমন সাড়া পড়েছে সেটি নিয়ে বিতর্কেও কম হচ্ছে না। গানে পোশাক ও দৃশ্য নিয়ে অভিযোগ তুলেছে স্বয়ং ভারতীয় ক্ষমতাসীন বিজেপি দলের নেতা। এবার নতুন করে ছবিটি নিয়ে সেন্সর বোর্ডে জটিলতার সৃষ্টি হয়েছে।

শাহরুখ খানের পাঠান প্রথম গান প্রকাশের পর থেকেই বিতর্কের শিরোনামে। দীর্ঘ ৪ বছর পর এই ছবি দিয়ে পর্দায় ফিরছেন শাহরুখ খান, তার ভক্তরা যেমন উচ্ছ্বসিত, প্রথম দিন থেকেই বয়কট প্রবণতার মুখে রয়েছে এই ধারাবাহিক। মধ্যপ্রদেশের বিজেপি নেতা নরোত্তম মিশ্র গেরুয়া বিকিনি পরার জন্য ফিল্ম থেকে ‘বেশরাম রং’ গানটি বাদ দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন। এবার সেন্সর বোর্ডে ধাক্কা খেল ‘পাঠান।

সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ফিল্ম সার্টিফিকেশন ‘পাঠান’ ছবিতে কিছু পরিবর্তন করতে বলেছে। সিবিএফসি-এর চেয়ারপার্সন প্রসূন যোশি জানিয়েছেন, কিছু গানের দৃশ্যসহ বেশ কিছু ছবির দৃশ্য মুছে ফেলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এই ছবিটি সার্টিফিকেটের জন্য জমা দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু বোর্ডের নির্দেশনা অনুযায়ী বেশ কিছু দৃশ্য বাদ পড়েছে। এমনটাই নির্দেশ দিয়েছে বোর্ড। সিদ্ধার্থ আনন্দের ছবিটি ২৫ জানুয়ারী মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে৷ ছবিটি হিন্দি, তামিল এবং তেলেগু ভাষায় মুক্তি পাবে৷ মুক্তির আগে ছবিটির চূড়ান্ত সংস্করণ জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে সেন্সর বোর্ড।

এদিকে ‘পাঠান’-এর ‘বেশরম রং’ নিয়ে বিতর্ক চলছেই। বিজেপি নেতৃত্ব এবং হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলি বিশেষ করে দীপিকার গেরুয়া বিকিনি নিয়ে তীব্র আপত্তি তুলেছে। এমনকি শাহরুখ খানকে পুড়িয়ে মা/রার হুমকিও দিয়েছেন অযোধ্যার এক সাধু। তপস্বী চাভনীর মহন্ত পরমহংস আচার্য নামের সাধকের মতে, চলচ্চিত্র নির্মাতারা বেশরম রং গানটিতে গেরুয়া রঙের অপমান করেছেন। তারপরই তার হু/মকি, ‘শাহরুখকে জীবন্ত পুড়িয়ে মারবো! যে সব হলে এই সিনেমা দেখানো হবে, সেখানেই আ/গুন ধরিয়ে দেব।তারপরই তার হু/মকি, ‘শাহরুখকে জীবন্ত পু/ড়িয়ে মা/রবো! যে সব হলে এই সিনেমা দেখানো হবে, সেখানেই আ/গুন ধরিয়ে দেব।’ তারপরই তার হু/মকি, ‘শাহরুখকে জীবন্ত পু/ড়িয়ে মা/রবো! যে সব হলে এই সিনেমা দেখানো হবে, সেখানেই আ/গুন ধরিয়ে দেব।’ তারপরই তার হু/মকি, ‘শাহরুখকে জীবন্ত পু/ড়িয়ে মা/রবো! যে সব হলে এই সিনেমা দেখানো হবে, সেখানেই আ/গুন ধরিয়ে দেব।

প্রসঙ্গত, পাঠান সিনেমা নিয়ে যেন বিকর্ত পিছু ছাড়ছে না এমনটায় প্রকাশ করছে গণমাধ্যমগুলো। শুধু এটাই নয় নতুন করে সেন্সর বোর্ড সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *