হাসিনার রুশিয়া বন্ধুরা তার কোমরের বিছা হইতে আসছে : পিনাকী

ক্ষমতাসীন আওয়ামীলী আবারও ক্ষমতার জন্য নতুন নকশা করছে। আর বিরোধী দল বিএনপি নির্দলীয় সরকারসহ বিভিন্ন দাবিতে গণতান্ত্রিক ভাবে আন্দোলন করছে সরকারের বিরুদ্ধে। অথচ তাদের আন্দোলন প্রতিহত করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দিয়ে দ/মন, পী/ড়ন চালাচ্ছে সরকার। এসব বিষয় নিয়ে যখন কূটনৈতিকরা কথা বলছে সরকারের পক্ষ থেকে দাবি করা হচ্ছে দেশের আভ্যন্তরীন বিষয় হস্তক্ষেপ করা হচ্ছে কিন্তু তাদের পক্ষ কথা বললে কোনো সমস্য হয় না এমটায় দাবি বিএনপির। এবার বাংলাদেশের আভ্যন্তরীন বিষয় যুক্তরাষ্ট্রের হস্তক্ষেপ নিয়ে কঠোর হুসিয়ারি দেয় রাশিয়া যা নিয়ে শুরু হয় নতুন জল্পনা-কল্পনা। বিষয়টি নিয়ে সা/মাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ/কটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন পিনাকী ভট্টাচার্য পা/ঠকদের জন্য হুবহু নি/চে দেওয়া হলো।

হাসিনার রুশিয়া বন্ধুরা তার কোমরের বিছা হইতে আসছে। আমরা ক্ষুদ্রকালে শ্লোগান শুনিতাম রুশ ভারতের দালালেরা হুশিয়ার সাবধান। এদ্দিন পরে আবার দেখেন আওয়ামী লীগের দুর্দিনে বাংলাদেশীদের চোখে এই দুই ঘৃণিত শক্তি হাসিনার পাশে ঠেকা দিতে আসছে।

আপনারা দেখছেন, রাশিয়া বলছে, বাংলাদেশে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ মাইন্যা নিবেনা। সাধারণভাবে কোন নির্দিষ্ট প্রেক্ষিত ছাড়া কথাটা শুনতে ভালোই লাগে! কিন্তু সাবেক কমিউনিস্টদের এই কথা কেন বলে? আসব সেকথায়!

তো সেই আলাপে যাওয়ার আগে রুশিয়া বন্ধুগো কই, হাসিনা সরকার কীভাবে ক্ষমতায় আসছে? ওয়ান ইলেভেন করেই তো আসছে। ইন্ডিয়া আমেরিকার যৌথ প্রযোজনায় আসছে তো। এখন আমেরিকা বুঝতেছে সে কতো বড় হাসিনা-দানবকে ক্ষমতায় বসাইছে। কাজেই এই দানবকে উপরাইয়া ফেলা বাংলাদেশের কাধ থিকা সরানোর দায়ও আমেরিকার। তবেই হবে হিসাব বরাবর! তাই না! আমেরিকা যে পাপ বা গুনা করেছে এর প্রায়শ্চিত্ত!

এর আগে রুশিয়া বন্ধুরা যদি আগ বাড়ায়ে বলে “তৃতীয় দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ খারাপ” তারে আগে ওয়ান ইলেভেন কে করছিলো কেন করছিলো সেইটার ব্যখ্যা দিয়া আসতে হবে। হাসিনারে বাংলাদেশের ঘাড়ে যখন চাপাইছে কথাটা তখন বললে কামে দিতো। বাংলাদেশের মানুষ সহজে মাইন্যা নিতো। তখন নিশ্চুপ থাইক্যা এখন সরব হওয়ার পিছে মতলবটা কী?

প্রসঙ্গত, হঠাৎ বাংলাদেশের পক্ষে রাশিয়ার কথা বলার ইস্যু নিয়ে নতুন সমীকরণ তৈরী হয়েছে রাজনীতিতে মন্তব্য করেন পিনাকী ভট্টাচার্য। তিনি বলেন, এই সরকারকে আবারও ক্ষমতায় রাখার পেছনে রাশিয়া উদ্দেশ্য কি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *